প্রতিবেশীরা জানালা দিয়ে দেখলেন তিনটি লাশ ঝুলছে

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় এক পরিবারের তিনজনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার সকালে উপজেলার ধানীসাফা গ্রামের একটি ঘর থেকে তাঁদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন উপজেলার ধানীসাফা গ্রামের মৃত রত্তন আলী হাওলাদারের ছেলে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকচালক মো. আয়নাল হক (৩৫), তাঁর স্ত্রী খুকুমণি (২৫) ও তাঁদের আড়াই বছরের কন্যাশিশু আরছিয়া আক্তার।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আয়নাল হক বাড়ির কাছে মোজাম্মেল হাওলাদারের একটি ভাড়া ঘরে স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন। আজ সকাল সাড়ে সাতটার দিকে প্রতিবেশীরা ঘরের মধ্যে আয়নাল হকের পরিবারের সদস্যদের সাড়া না পেয়ে সেখানে যান। এরপর জানালা দিয়ে তাকিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে তিনজনের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। খবর পেয়ে ধানীসাফা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস মো. মানিক বিশ্বাস স্থানীয় গ্রাম পুলিশকে জানান। এরপর খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

মো. মানিক বিশ্বাস বলেন, আয়নাল হকের ঘরের উত্তর পাশে সিঁধ কাটা আছে। সন্দেহ করা হচ্ছে দুর্বৃত্তরা সিঁধ কেটে ঘরে ঢুকে তিনজনকে হত্যা করে লাশ আড়ার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। তবে ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা, তা বোঝা যাচ্ছে না। আয়নাল হকের আত্মীয়স্বজন আত্মহত্যা করার কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছেন না। তাঁরা মনে করেন, এটা হত্যাকাণ্ড।

মঠবাড়িয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. বসির আহমেদ ঘটনাস্থল থেকে বলেন, এটা আত্মহত্যা না হত্যাকাণ্ড, তা বোঝা যাচ্ছে না। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। পুলিশ মৃত্যুর রহস্য উদ্‌ঘাটনের চেষ্টা করছে।

The news collected

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: