দেশ বন্যামুক্ত হতে আরও ৭ থেকে ১০ দিন

জুনের শেষের দিকেই দেশ বন্যা পরিস্থিতির শিকার হয়। এই পরিস্থিতিতেই কেটে গেল জুলাই, চলছে আগস্টের প্রথম সপ্তাহ– এই পুরো সময়ই বন্যার কবলে রয়ে গেছে দেশ। দেশ পুরোপুরি বন্যামুক্ত হতে আরও ৭ থেকে ১০ দিন লাগতে পারে।

সোমবার (৩ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাগো নিউজকে এ তথ্য জানান বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. আলরাজি।

তিনি বলেন, ‘২৯, ৩০, ৩১ জুলাই বৃষ্টির একটা ধাপ গেছে। এ বৃষ্টি হওয়াতে পানি স্থিতিশীল ছিল। এখন সামনে বৃষ্টি নেই। এখন পানি কমা শুরু করবে। ক্রমান্বয়ে বন্যার এখন উন্নতি হবে। কুড়িগ্রামে এখন বিপৎসীমার ৩৯ সেন্টিমিটারের উপরে আছে, সেটা নামতে আগস্টের প্রথম সপ্তাহ লেগে যাবে। সিরাজগঞ্জের সারিয়াকান্দিতে বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।’

আলরাজি বলেন, ‘এখন প্রতিদিন ১০ থেকে ১৫ সেন্টিমিটার করে পানি নামা শুরু করবে। তাতে এই প্রথম সপ্তাহ পুরোটা লাগবে বন্যা কমতে। বিপৎসীমার ২০ সেন্টিমিটার নিচে নেমে গেলে বন্যা স্বাভাবিক অবস্থায় চলে এসেছে বলা যাবে। মানে এখন যে জলাবদ্ধতা বা নিম্নাঞ্চলগুলো প্লাবিত আছে, এই পানিগুলো নেমে যাবে। আশা করছি, ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে দেশ পুরোপুরি বন্যা মুক্ত হবে। তবে তার আগেও হয়ে যাতে পারে।

ঢাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যেহেতু বড় নদীগুলোর পানি কমে আসছে, ঢাকার আশপাশের নদীগুলোর পানিও কমে আসবে। এখন তো ঢাকায় বন্যা স্থিতিশীল অবস্থায় আছে। হয়তো দুই কমল বা দুই বাড়ল। ৫ থেকে ৬ আগস্ট থেকে পানি কমা শুরু হয়ে যাবে। তারপর পানি একেবারে বিপৎসীমার নিচে নেমে যেতে যে সময় লাগে আর কী। অর্থাৎ, ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যে ঢাকাও বন্যা মুক্ত হবে আশা করি।’

অন্যদিকে ১ আগস্ট এক পূর্বাভাসে আগামী ১০ দিনের (১০ আগস্ট পর্যন্ত) বিষয়ে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র বলেছে, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদীর পানি ৭ আগস্টের মধ্যে কমতে পারে। আগামী ৭ দিনে কুড়িগ্রাম, বগুড়া, গাইবান্ধা, সিরাজগঞ্জ, জামালপুর, টাঙ্গাইল ও মানিকগঞ্জ জেলার বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে। গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানি বাড়তে পারে। রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ পয়েন্ট, মুন্সিগঞ্জ জেলার ভাগ্যকূল পয়েন্ট এবং শরীয়তপুর জেলার সুরেশ্বর পয়েন্টে আগামী ৭ দিন পানি ক্রমান্বয়ে কমতে পারে। যার ফলে আগামী ৭ দিনে এসব জেলার বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হতে পারে। ঢাকার চারপাশের নদীর পানি স্থিতিশীল থাকতে পারে। নারায়ণগঞ্জে লক্ষ্যা নদীর পানি আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত স্থিতিশীল থাকতে পারে। তারপর কমে বিপৎসীমার নিচে চলে আসতে পারে। যার ফলে জেলার নিম্নাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি আগামী ৪ দিন পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।

The news collected

kutubdianews

দৈনিক কুতুবদিয়া নিউজ সর্বস্তরের খবর অনুসন্ধানে সত্য তুলে ধরবো আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: