চসিক নির্বাচন ঘিরে শেষ প্রচারণায় সড়কে তীব্র যানজট

অনলাইন রিপোর্টার: জয়নাল আবেদীন।

বহুল প্রতীক্ষিত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচনে আগামী বুধবার (২৭ জানুয়ারি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী সোমবার (২৫ জানুয়ারি) মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে নির্বাচনের সব ধরনের প্রচার-প্রচারণা। মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থী এবং তাদের সমর্থকদের শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় যানজটের মধ্যে পড়েছেন বন্দরনগরী চট্টগ্রামের মানুষ। যানজটে কার্যত থমকে গেছে মহানগর। দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন যাত্রীরা। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) বিকেল থেকে নগরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, প্রায় প্রতিটি এলাকায় মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থী এবং তাদের সমর্থকরা মিছিল-সমাবেশ করছেন। অনেক ক্ষেত্রে তা হচ্ছে নগরের প্রধান রাস্তা বন্ধ করেই। অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোতেও একই চিত্র।

যানজটের কারণে সড়কে তৈরি হয়েছে যানবাহনের দীর্ঘ সারি। এতে কখনো গাড়ির চাকা যাচ্ছে থমকে, কখনো ঘুরছে ধীরগতিতে। যানজটের কবলে পড়ে রীতিমতো অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেন যাত্রী ও চালকরা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা তারা সড়কেই কাটান। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে নগরের চকবাজার মোড় এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, সড়কে যানবাহনের সারি। দীর্ঘ এই যানজট গুলজার মোড় থেকে চট্টগ্রাম কলেজ পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়ে। চালকরা একে অপরের সঙ্গে তর্কে লিপ্ত হলেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ট্রাফিক পুলিশের কোনো সদস্যকে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়নি।

বিকেল ৫টার দিকে বহদ্দারহাটে গিয়ে দেখা যায়, অপেক্ষমাণ মানুষের দীর্ঘ সারি। গাড়ি না পেয়ে অনেকে হেঁটেই পথ পাড়ি দিচ্ছেন। দীর্ঘক্ষণ পর একটি গাড়ি এলেই হুমড়ি খেয়ে পড়েন যাত্রীরা। অনেক চালক এ সুযোগে আদায় করেন বাড়তি ভাড়া। প্রচারের শেষ দিন দুপুরে নগরের বহদ্দারহাট এলাকা থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম চৌধুরী। তার সঙ্গী হন সাবেক মেয়র আ জ ম নাছিরসহ আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংঘটনের নেতাকর্মীরা।

এ সময় প্রার্থী ছাড়াও বিভিন্ন পাড়া-মহল্লা জয় বাংলা স্লোগানে মুখরিত করে তোলেন ছাত্রলীগের কর্মীরা। আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরীর পক্ষে মিছিল দেখা গেছে নগরের জামালখান, মোমিন রোড, আগ্রাবাদ, চাঁন্দগাওসহ বিভিন্ন এলাকায়। এছাড়া বিভিন্ন প্রচার গাড়ি থেকে ভোট প্রার্থনা করা হচ্ছে। এদিকে দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বিপুল নেতাকর্মী নিয়ে নগরের লাভ লেন, জুবলি রোড ও নিউমার্কেট এলাকায় প্রচারণা চালান বিএনপির মেয়র প্রার্থী শাহাদাত। নগরের দেওয়ানহাট এলাকায় মোটর শোভাযাত্রা হয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মোহাম্মদ জান্নাতুল ইসলামের সমর্থনে। এর আগে তিনি নগরের আদালত পাড়ায় প্রচারণা চালান।

এদিকে দুপুরের পর বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত মেয়র প্রার্থী মাওলানা এম এ মতিনের পক্ষে মিছিল-সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র সেনা। এছাড়া নগরের ৪১টি ওয়ার্ডের প্রতিটিতেই এই মুহূর্তে নিজ নিজ কাউন্সিলর প্রার্থীদের পক্ষে মিছিল ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। প্রসঙ্গত, নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী ভোটগ্রহণ শুরু হওয়ার ৩২ ঘণ্টা আগে থেকে কোনো প্রচার চালানো যাবে না। সোমবার মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে নির্বাচনের সব ধরনের প্রচার-প্রচারণা।

সুত্র: Jagonews24

Copyright© by Kutubdia News

kutubdianews

দৈনিক কুতুবদিয়া নিউজ সর্বস্তরের খবর অনুসন্ধানে সত্য তুলে ধরবো আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: