রমজানে সামাজিক সহমর্মিতা ও ভ্রাতৃত্ব বোধ সৃষ্টি করে

বগুড়া প্রতিনিধি:

ইসলামের দৃষ্টিতে এতিমের প্রতিপালন জান্নাতে যাওয়ার উপায়। হাদিস শরিফে এসেছে, ‘যে ব্যক্তি কোনো এতিমকে আপন মা-বাবার সঙ্গে নিজেদের (পারিবারিক) খাবারের আয়োজনে বসায় এবং (তাকে এই পরিমাণ আহার্য দান করে যে) সে পরিতৃপ্ত হয়ে আহার করে, তাহলে তার জন্য জান্নাত ওয়াজিব হয়ে যাবে।

গন্ডগ্রাম তেলাওয়াতুল কুরআন হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানায় দ্বিতীয় রমজানে সবুজ স্বপ্ন ফাউন্ডেশন এর চেয়ারম্যান লায়ন খায়রুল আলম লাখিন ইফতার সামগ্রী প্রদানকালে বলেন এসমস্ত ইয়াতিম বাচ্চাদের দেশপ্রেম জাগ্রত করে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করবার জন্য তৈরি করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব আমরা যদি এসমস্ত এতিমদের প্রতি খেয়াল রেখে তাদের কে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে পারি তবে তারা সমাজের জন্য অবদান রাখতে পারবে, তাই সমাজের বিত্তবানদের প্রতি তিনি আহ্বান জানান অসহায় এসমস্ত শিশুদের বিশেষ দৃষ্টি রাখার জন্য শুধু রমজান মাসেই যেন সীমাবদ্ধ না থাকে, এসমস্ত শিশুরাই একদিন আমাদের দেশের ভবিষ্যৎ হবে তাই আমাদের ভবিষ্যতের সুপ্রতিষ্ঠিত করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব, তাই দায়িত্ববোধ থেকে আসুন আমরা যে যার অবস্থান, অবস্থান থেকে পারি অসহায় দুস্তদের পাশে দাঁড়াই।

উপস্থিত ছিলেন মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক কারী সোহাইল আহমেদ, ছোটন সহ গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তি বর্গ।

kutubdianews

দৈনিক কুতুবদিয়া নিউজ সর্বস্তরের খবর অনুসন্ধানে সত্য তুলে ধরবো আমরা

Leave a Reply

x
%d bloggers like this: