মৃত ব্যক্তির ভয়ংকর চিৎকারে কেঁপে উঠলো হাসপাতালের মর্গ

হাসপাতালে ভর্তি এক ব্যক্তিকে মৃত বলে ঘোষণা করেছিলেন চিকিৎসকরা। মর্গে তার দেহ সংরক্ষণের জন্য রাখা হয়েছিল। সেখানেই যখন তার দেহ সংরক্ষণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে তখনই জেগে ওঠেন ওই ‘মৃত’ ব্যক্তি। জেগে নিজেকে মর্গে দেখেই চিৎকার করতে শুরু করেন। কেনিয়াতে হাসপাতালের অবহেলার এমনই ভয়ঙ্কর এক ঘটনার কথা সম্প্রতি সামনে এসেছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

জানা গেছে, ৩২ বছরের ওই ব্যক্তির নাম পিটার কিগেন। সম্প্রতি পেটে প্রচণ্ড ব্যথা নিয়ে কেনিয়ার কেইরিচোর কাপলাটেট হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। সেখানে ভর্তি হওয়ার দিন কয়েক পরে তার পরিবারের লোকের কাছে খবর যায় পিটার মারা গিয়েছেন।

পিটারের ভাই জানিয়েছেন, হাসপাতালের এক নার্স তাকে ভাইয়ের মৃত্যুর খবর দেন। তিনি বলেছেন, মৃত্যুর খবর পেয়ে আমি হাসপাতালে যাই। মর্গ থেকে দেহ নেওয়ার জন্য আমাকে কাগজপত্রও দিয়েছিলেন নার্স। কর্মকর্তারা দেহ সংরক্ষণের আগে মর্গে ডেকে পাঠান। সেখানে যেতেই চমকে যাই। দেখি ভাই নড়াচড়া করছে। আমি বুঝতে পারছি না এক জন জীবিত ব্যক্তিকে কী ভাবে মর্গে নিয়ে যাওয়া হল।

এদিকে নিজেকে মর্গে আবিষ্কার করে ভয়ে চিৎকার করতে থাকেন কিগেন।

জীবিত অবস্থায় মর্গে পৌঁছে যাওয়া পিটার বলেছেন, যা ঘটল তা আমি বিশ্বাস করতে পারছি না। কী করে ওরা বুঝল আমি মৃত? সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ আমার জীবন বাঁচিয়ে দেওয়ার জন্য।

The news collected

kutubdianews

দৈনিক কুতুবদিয়া নিউজ সর্বস্তরের খবর অনুসন্ধানে সত্য তুলে ধরবো আমরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
%d bloggers like this: